শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

শিশুর রক্তশূন্যতা

reasons-_52856_1500692288অপুষ্টিজনিত কারণে সংখ্যক শিশু অ্যানিমিয়ায় ভোগে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মতে ৬ মাস থেকে ৬ বছর বয়সী শিশুর হিমোগ্লোবিন মাত্রা যদি ১১ গ্রাম/ডেসি. লিটারের কম থাকে এবং ৬ বছর থেকে ১৪ বছর বয়সীতে রক্তে হিমোগ্লোবিন লেভেল ১২ গ্রাম/ ডেসি. লিটারের নিচে থাকে সে অ্যানিমিয়ায় ভুগছে বলে ধরা হয়।

শিশুর অসুস্থজনিত রক্তস্বল্পতার জন্য প্রধানত আয়রন, ফলিক এসিড, ভিটামিন বি ১২, প্রোটিন ও ভিটামিন ই ঘাটতি মুখ্য কারণ।

রোগচিহ্ন : খিটখিটে মেজাজ, ক্ষিদে মন্দা, ফ্যাকাশে ভাব এগুলো হল প্রাথমিক উপসর্গ, পরে সে বুক ধড়পড়, শ্বাসকষ্ট, সামান্যতেই ক্লান্ত হওয়া, খেলাধুলায় হাঁপিয়ে ওঠা ও হার্টফেলিওর-এর মতো লক্ষ্যণাদি নিয়ে হাজির হয়।

রোগ প্রতিরোধ : শিশুর প্রথম ৬ মাস পর্যন্ত মাতৃদুগ্ধ পান, ৬ মাস বয়স হতে শিশুকে ঘরে তৈরি পরিপূরক খাবার খাওয়ানো শুরু করা।

* যেসব শিশু স্বল্প জন্মওজন নিয়ে জন্মায় (জন্ম ওজন ২৫০০ গ্রাম এর কম) তাদের ২ মাস বয়স হতে আয়রন যোগান।

* প্রতি ৩-৪ মাস অন্তর শিশুকে কৃমির ওষুধ খাওয়ান।

* শিশুকে প্রয়োজনানুযায়ী আয়রন টেবলেট ও ফলিক এসিড প্রদান।

* শিশুর প্রতিদিনের খাবারে সবুজ শাকসবজি, ফলমূল ও সল্ট ফোরটিফিকেশন, আয়রন ঘাটতিজনিত রক্তস্বল্পতা দূরীকরণে সাহায্য করে।

-সুস্থ থাকুন ডেস্ক

সংবাদ শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

BengalTimesNews.com