বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

বিশ্বজুড়ে বিশুদ্ধভাবে আল কোরআনের খেদমতে দারুল ক্বিরাতের অবদান উল্লেখযোগ্য -আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী

image1ইউকে বার্মিংহাম লজেলস উইলস স্ট্রিট বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার এন্ড জামে মসজিদে ইউকে অনুমোদিত দারুল ক্বিরাত মজিদিয়া ফুলতলী ট্রাস্টের অধীনে সামার হলিডে উপলক্ষে মাসব্যাপী পবিত্র কোরআন শরীফ বিশুদ্ধ ভাবে পাঠ দান সম্পন্ন হয়েছে। পাঠ দান শেষে গত ২৬ আগস্ট শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় বার্মিংহাম আস্টন বাংলাদেশ মাল্টিপারপাস সেন্টারে ছাত্র/ছাত্রী ও শিক্ষকদের এ্যাওয়ার্ড প্রদান উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে ছাত্র/ছাত্রী, অভিভাবক, কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও উলামায়ে ক্বেরামগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে ছাত্র/ছাত্রীদের ক্বেরাত ও নাশিদ পরিবেশনায় সভাস্থল মনোমুগ্ধকর হয়ে ওঠে।
বাংলাদেশ মাল্টিপারপাস সেন্টারের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আলহাজ নাছির আহমদের সভাপতিত্বে ও সেন্টারের প্রধান শিক্ষক মাওলানা মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দীর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সভাপতি হযরত আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্যান্ডওয়েল কাউন্সিলের মেয়র আলহাজ আহমেদ উল হক এমবিই, বার্মিংহাম সিরাজাম মুনিরা জামে মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টারের খতিব আলহাজ হাফিজ সাবিক্ষর আহমদ।
সেন্টারের সেক্রেটারি আলহাজ আজির উদ্দিন আবদাল ও সেন্টারের সহকারী প্রধান শিক্ষক মাওলানা বদরুল হক খান’র শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে হযরত আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন দলের প্ররোচনায় মুসলমানরা বিভ্রান্ত হেেত চলেছেন। এই দলগুলো পবিত্র কুরআন সহীহ-শুদ্ধ ভাবে শিখার উদ্যোগ না নিয়ে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তিনি বলেন, এই দলগুলোর বড় বড় নেতার চেয়ে দারুল ক্বেরাত মজিদিয়া ফুলতলী থেকে শুদ্ধ ভাবে কুরআন শিক্ষা নেয়া ছাত্র/ছাত্রীদের কুরআন তেলাওয়াত অনেক বেশি শুদ্ধ। তিনি বলেন, বিশুদ্ধ ভাবে কোরআন তেলাওয়াত করা প্রত্যেক মুসলমানের জন্য ফরজ। বিশুদ্ধ ভাবে কোরআন তেলাওয়াত শিক্ষা দেয়ার জন্য দেশ বিদেশে প্রতি বছর দারুল ক্বিরাত মজিদিয়া ফুলতলী ট্রাস্টের অধীনে হাজার হাজার ছাত্র/ছাত্রীকে পবিত্র কুরআন শরীফ শিক্ষা দেয়া হচ্ছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিশুদ্ধ ভাবে কোরআন শিক্ষা দানের ক্ষেত্রে দারুল ক্বেরাতের অবদান বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য। তিনি আরও বলেন, আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে বিশুদ্ধ ভাবে কোরআন শিক্ষা গ্রহণের জন্য অভিভাবকদের সচেতন ভাবে কাজ করতে হবে। তাদেরকে কোরআন ও হাদিসের শিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলতে হবে। পবিত্র কোরআন ও হাদিসের শিক্ষার মাধ্যমে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম  দ্বীনের পথে জীবন পরিচালনায় উৎসাহিত হবে। তিনি মুসলমানদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ানোর কাজে লিপ্ত লা-মাযহাবি, আহলে হাদিস প্রভৃতি বাতিল ফিরকা থেকে নিজেদের এবং ভবিষ্যত প্রজন্মদের নিরাপদ রাখার জন্য সকল অভিভাককে সচেষ্ট থাকার আহক্ষান জানান।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ কাজী আংগুর মিয়া, মোঃ গাবরু মিয়া, ফাউন্ডার মেম্বার হাজী আবুল হোসাইন ছাত্তার মিয়া, বাংলাদেশ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ফিরুজ খান, বার্মিংহাম আনজুমানে আল ইসলাহ’র ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট মাওলানা আতিকুর রহমান, ক্যাশিয়ার হাজী মোঃ সাহাব উদ্দিন, সেন্টারের শিক্ষক মাওলানা এহসানুল হক,  হাফিজ রুমেল আহমদ, হাফিজ বদরুল ইসলাম, সেন্টারের ক্যাশিয়ার হাজী তেরা মিয়া, সহকারী ক্যাশিয়ার হাজী রজব আলী, কমিউনিটি নেতা ফখর উদ্দিন, আস্টন এডিংটন রোড জামে মসজিদ কমিটির চেয়ারম্যান সফিক মিয়া চৌধুরী গনি, আহমেদ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের ডাইরেক্টার শাফি আহমেদ, সিলেট স্পোর্টিং ক্লাবের চেয়ারম্যান মাসুক মিয়া প্রমুখ।
সভা শেষে বিশেষ মুনাজাতে বিশ্ব মুসলিমের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় দোয়া করা হয়।

সর্বশেষ সংবাদ