রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শুরু হচ্ছে আজ

Tax-inner20171031223925সিলেটে আজ শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা। ২শ’ কোটি টাকা কর আদায়ের লক্ষ্য নিয়ে নগরীর মাছিমপুরস্থ আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে মেলা শুরু হচ্ছে।

মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখবেন- বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া, ডিআইজি কামরুল আহসান, জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, কাস্টমস কমিশনার শফিকুল ইসলাম ও সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি হাসিন আহমদ। মেলায় আয়কর সংক্রান্ত সব ধরণের সেবা প্রদান করা হবে।

সিলেট কর অঞ্চলের কমিশনার সৈয়দ মোহাম্মদ আবু দাউদ বাদল জানিয়েছেন- সিলেটের মানুষ কর প্রদান করতে আগ্রহী। এজন্য ২০০১ সালে যাত্রা শুরুর পর অধিকাংশ অর্থবছরেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সফল হয়েছে সিলেট কর অঞ্চল। তিনি বলেন- ‘সিলেট কর অঞ্চল থেকে বিভিন্ন আইডিয়া সারা দেশে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ৪০ হাজার করদাতা নিয়ে শুরু করা সিলেট কর অঞ্চলের করদাতার সংখ্যা এখন ১ লাখ ৮৯ হাজার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৫শ কোটি টাকার স্থলে আদায় হয়েছে ৫১০ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরেও লক্ষ্যমাত্র অর্জিত হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।’

সৈয়দ মোহাম্মদ আবু দাউদ বাদল, ২০০১ সালে ৯টি সার্কেল অফিস ও ২টি রেঞ্জ অফিস নিয়ে সিলেট কর অঞ্চলের যাত্রা শুরু হয়। ওই সময় করদাতার সংখ্যা ছিলো মাত্র ৪০ হাজার ১৯০ জন। ২০০৮ সালে ১৫ সেপ্টেম্বরকে জাতীয় আয়কর দিবস হিসেবে ঘোষণা করার পর থেকেই সিলেট কর অঞ্চল সামনের দিকে এগিয়ে চলে। বর্তমানে ২২টি কর সার্কেল ও ৪ টি রেঞ্জ অফিস নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে সিলেট কর অঞ্চলের কার্যক্রম। বর্তমানে টিআইএনধারীর সংখ্যা ১ লাখ ৮৯ হাজার ৯৩৪ জন।

গত ৫ অর্থবছরের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০১২-১৩ অর্থবছরে এ অঞ্চলের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ৩৫৫ কোটি টাকা। ওই বছর আদায় হয়েছিলো ৩৭১ কোটি টাকা। করদাতা ছিলেন ১ লাখ ১৬ হাজার ১৩৩ জন। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে সিলেট কর অঞ্চলের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪৫০ কোটি টাকা। আদায় হয়েছে ৩৯২ কোটি টাকা। এ বছর করদাতা ছিলেন ১ লাখ ২৮ হাজার ৪২৮ জন। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রা ৩৩২ কোটি টাকার মধ্যে আদায় হয় ৩৫৯ কোটি ৭৮ লাখ টাকা।

করাদাতা ছিলেন ১ লাখ ৩৮ হাজার ৪২৮ জন। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ৪৪০ কোটির মধ্যে আদায় হয় ৩৮৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। এ বছর করদাতার সংখ্যা ছিলেন ১ লাখ ৩৯ হাজার ১২৮ জন। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৫শ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রায় অর্জিত হয়েছে ৫১০ কোটি ১২ লাখ টাকা। এ বছর করদাতা ছিলেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ৯৩৪ জন। চলতি অর্থবছরে ৭২৫ কোটি টাকা লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আদায় হয়েছে ১২২ কোটি টাকা।

সিলেট কর অঞ্চলের কমিশনার কমিশনার সৈয়দ মোহাম্মদ আবু দাউদ বলেন- দিনদিন কর আদায়ের ক্ষেত্রে সাফল্য আসছে। আদায় ও প্রবৃদ্ধি বাড়ছে। ঢাকা ও চট্রগ্রামের পর সিলেট কর প্রদানে এগিয়ে। এ অঞ্চল সারা দেশের জন্য মডেল।

তিনি জানান, সিলেট কর অঞ্চলের অনেক আইডিয়া এখন সারাদেশে প্রতিফলিত হচ্ছে। ইউনিয়ন উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে টিন সার্টিফিকেট সেখান থেকে প্রদান, গাড়িতে করদাতার স্টিকার লাগানো, আয়কর অফিসে ডে কেয়ার সেন্টারসহ কিছু আইডিয়া সিলেট থেকেই শুরু করা হয়।

কর প্রদানে এগিয়ে থাকা সিলেটের নিজস্ব ভবন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সম্প্রতি দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুল এলাকায় ২ একর জায়গার একটি প্রস্তাব এনবিআর এর কাছে প্রেরণ করা হয়েছে। অনুমতি দিয়েছে এনবিআর। মন্ত্রণালয় থেকে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ওই ভূমি অধিগ্রহণ করা হবে।

সংবাদ শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ

BengalTimesNews.com