শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

ঘরে ফেরা হলো না মা ছেলের

accidentবড়লেখা প্রতিনিধি:: বড়লেখায় ডাক্তার দেখাতে গিয়ে সড়কে প্রাণ হারালেন ৫ বছরের ছেলেসহ অন্তঃস্বত্ত্বা কল্পনা বেগম (৩৬)। ট্রাক্টর ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে তাদের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নিহত গৃহবধু উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের চন্ডিনগর (চান্দেরগুল) গ্রামের আজমত আলীর স্ত্রী। তার সাথে মারা গেছে পাঁচ বছরের শিশু সন্তান মাহফুজুর রহমান। এসময় আজমত আলী অটোরিকশায় থাকলেও ভাগ্যক্রমে বেচে যান। শনিবার বিকেলে ময়না তদন্ত শেষে নিহতদের লাশ স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করেছে বিয়ানীবাজার পুলিশ।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের শাহবাজপুর-বিয়ানীবাজার (এলজিইডি) সড়কের অর্জুনপুর এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। তিনি ডাক্তার দেখানোর জন্য বিয়ানীবাজার যাচ্ছিলেন। ঘটনার পর ট্রাক্টরসহ ঘাতক চালক পালিয়ে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের চন্ডিনগর (চান্দেরগুল) গ্রামের আজমত আলী স্ত্রী কল্পনা বেগমকে ডাক্তার দেখানোর শিশুপুত্র মাহফুজুর রহমানসহ সিএনজি চালিত অটোরিকশায় বিয়ানীবাজার যাচ্ছিলেন। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের শাহবাজপুর-বিয়ানীবাজার (এলজিইডি) সড়কের অর্জুনপুর এলাকায় বিপরীত দিক থেকে ছুটে আসা একটি ট্রাক্টরের সাথে অটোরিকশাটির সংঘর্ষ ঘটে। এতে অন্ত:স্বত্ত্বা কল্পনা বেগম ও তার পাঁচ বছরের শিশু সন্তান মাহফুজুর রহমান গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মা-ছেলেকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে এ ঘটনায় অটোরিকশার আর কোন যাত্রী আহত হননি। ঘটনার পরই ট্রাক্টরসহ ঘাতক চালক পালিয়ে যায়।

বিয়ানীবাজার থানার ওসি শাহ জালাল মুন্সি জানান, ময়নাতদন্ত শেষে শনিবার বিকেলে বড়লেখা থানাকে বিষয়টি অবহিত করে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বড়লেখা থানা আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে।

সর্বশেষ সংবাদ