বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

সচিবালয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে বাঘমশাই! (ভিডিও)

tiger-20181106084951 (1)আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: দিনের বেলা এই চত্বরে দাপিয়ে বেড়ান রাজনীতি-প্রশাসনের ‘বাঘ-সিংহরা’। তাদের অনেকের দাপটেই বাঘে-গরুতে এক ঘাটে পানি খায়। এই ভবন থেকেই নিয়ন্ত্রিত হয় গোটা রাজ্যের প্রশাসনিক কার্যকলাপ। আর সেই ভবনেই কিনা হানা দিল চিতাবাঘ!

সোমবার ভোরে গাঁধীনগরে গুজরাটের প্রশাসনিক সদর দফতরে সিসিটিভিতে ধরা পড়েছে চিতাবাঘের ছবি। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর সেই ভিডিও দেখে অবাক হয়ে যান মন্ত্রী-আমলারা।

চিতার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেন বন দফতরের কর্মীরা। গোটা এলাকা ঘিরে রেখে চলে খোঁজাখুঁজি। পরে খাঁচাও পাতা হয়। সেই খাঁচাতেই বিকেলের দিকে ধরা পড়ে চিতাবাঘটি। তারপর কর্মী, নেতা ও মন্ত্রীদের ভেতরে ঢোকার অনুমতি দেয় বন দফতর।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়, রোববার রাতের ডিউটি প্রায় শেষ করে আচমকাই সিসিটিভির পর্দায় চোখ রেখে চমকে ওঠেন একজন নিরাপত্তাকর্মী। সচিবালয় চত্বরের ভেতরেই অবলীলায় ঘুরে বেড়াচ্ছে এই শ্বাপদ। কখনও লনে দুলকি চালে ঘুরে বেড়াচ্ছে, তো কখনও গ্রিলের ব্যারিকেডের নিচের ফাঁক দিয়ে ঢুকে পড়ছে অন্যদিকে। সঙ্গে সঙ্গে ওই নিরাপত্তাকর্মী বাকিদের ডেকে নেন। তারা বিষয়টি বন দফতরকে জানান।

খবর পেয়ে বন দফতরের কর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। কিন্তু ততক্ষণে চিতাবাঘটি হাওয়া। বন দফতরের কর্মীরা গোটা বিধানসভা চত্বরে কার্যত চিরুনি তল্লাশি চালান। তাদের সঙ্গে যোগ দেয় পুলিশ। ঘিরে ফেলা হয় গোটা এলাকা। ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ জানিয়ে দেয়, বন দফতর গোটা বিধানসভা চত্বর নিরাপদ ঘোষণা না করা পর্যন্ত কাউকে ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হবে না। বিকেলের দিকে চিতাবাঘটি ধরা পড়ার পর আতঙ্কের অবসান হয়।

সিসিটিভির ফুটেজ খতিয়ে দেখে বন বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, সম্ভবত খাবারের টানেই লোকালয়ে চলে আসে চিতাবাঘটি।

সর্বশেষ সংবাদ