মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

অস্ট্রেলিয়াকে কোহলির উইকেট এনে দেবেন ছয় বছরের শিলার!

10-3স্পোর্টস ডেস্ক::

‘হ্যালো আর্চি, আমি জাস্টিন ল্যাঙ্গার বলছি।’
‘হাই জাস্টিন।’

‘তোমার জন্য একটা সুখবর আছে, আর্চি। মেলবোর্নে ভারতের বিপক্ষে বক্সিং ডে টেস্টের জন্য আমরা তোমাকে দলে নিচ্ছি।’

বাবা-মায়ের পাশে বসে ল্যাঙ্গারের ভিডিও কলটা ধরেছিল আর্চি শিলার। খবরটা শুনে তার মুখটা দেখার মতো হলো। বিস্ময়, আনন্দ মিলেমিশে একাকার।

সিরিজের প্রথম দুই টেস্টের জন্য দল ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া। মেলবোর্নে তৃতীয় টেস্টের দল এখনো দল ঘোষণা হয়নি। তার আগেই কোচের কাছ থেকে এভাবে দলে থাকার খবর পেয়ে যাওয়া তো অবিশ্বাস্য ব্যাপারই। এটুকু পড়ে নিশ্চয়ই পাঠকদেরও খটকা লাগছে। আর্চি শিলার কে? নামটা তো চেনা লাগছে না একটুও। চেনার কথাও না। শিলার আগে কখনো অস্ট্রেলিয়ার কোনো দলে খেলেনি। খেলবে কী করে, তার বয়স যে মাত্র ৬!

আরও ধন্দে পড়ে গেলেন তো! ছয় বছরের ছেলে কেন অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে? ঘটনাটা খুলেই বলা যাক তাহলে।

জন্মের পর থেকেই হৃৎপিণ্ডে একটা সমস্যা নিয়ে বড় হচ্ছে শিলার। হৃৎকম্পন অনিয়মিত তার, এই বয়সে এরই মধ্যে চৌদ্দটা অস্ত্রোপচার হয়ে গেছে তার। চিকিৎসকেরা বলছেন, আরও অনেকগুলো অস্ত্রোপচার লাগতে পারে। আসলে তার বেঁচে থাকা নিয়েই সংশয়।

অথচ শিলারের স্বপ্ন ক্রিকেটার হওয়ার। স্পিন বোলিং করে সে। নিজের বন্ধুবান্ধবের কাছে ভালো লেগ স্পিনার হিসেবে নামও আছে। কিন্তু সেই স্বপ্নের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে হৃৎপিণ্ডের ওই সমস্যাটা। ছোট শিলারের এই স্বপ্নকে প্রতীকীভাবে সত্যি করতেই ‘মেক আ উইশ’ ফাউন্ডেশন নামে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় এই উদ্যোগ নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়া দলে থাকা অন্য সব খেলোয়াড়ের সঙ্গে যোগ দেবে শিলার। খেলানো হবে না স্বাভাবিকভাবেই। তবে এভাবে অস্ট্রেলিয়া দলের সঙ্গে থাকাও তো তার জন্য বিশাল ব্যাপার।

শিলারের অবশ্য খেলার খুব ইচ্ছে। ফোনেই ল্যাঙ্গার তাকে বলেছেন, ‘তোমাকে বক্সিং ডে টেস্টে খেলানো হবে কি না, এটা কিন্তু নিশ্চিত নয়।’ শুনে শিলার সঙ্গে সঙ্গে বলে দিল, ‘খেলতে পারলে আমি তোমাকে বিরাট কোহলির উইকেটটা এনে দিতে পারব।

আর্চি শিলার ছেলেটা আসলেই অন্য রকম।

সর্বশেষ সংবাদ